টয়লেটে ফোন ব্যবহার, অজান্তেই ডাকছেন নিজের বিপদ

অনলাইন ডেস্কঃ বর্তমান সময়টা এমন যে, মোবাইল ফোনটা হাতে না থাকলে চোখে অন্ধকার দেখেন অনেকেই। এমনকি বাথরুমে যাওয়ার সময়ও ফোনটা সঙ্গে থাকা চাই।কিন্তু এই অভ্যাস কি সত্যিই স্বাস্থ্যসম্মত?

বিশেষজ্ঞরা বলছেন, একেবারেই না। বিশেষত টয়লেটের কমোডে বসে মোবাইল ঘাঁটা তো একেবারেই উচিত না।

চিকিৎসকরা বলছেন, মোবাইলের কাভার সাধারণত রাবারের তৈরি হয়। আর এই রাবারেই বাসা বাঁধে যাবতীয় ক্ষতিকারক ভাইরাস ও ব্যাকটেরিয়া। বাথরুমের ফ্লাশ, কল বা দরজার লক ব্যবহারের পর মোবাইলের স্ক্রিনে হাত দিলে সেখানেও জন্মাতে পারে ব্যাকটেরিয়া। যা থেকে টাইফয়েডের মতো অসুখ হতে পারে।

টয়লেটের ভেজা পরিবেশে ব্যাকটিরিয়া দ্রুত বংশবৃদ্ধি করে। ঠিকভাবে হাত না ধোওয়া বা টয়লেট ব্যবহারের সময় সেই জায়গায় মোবাইল রাখার ফলে তাতে দ্রুত ছড়িয়ে পড়ে ই.কোলাই, সিগেল্লা এবং ক্যামফাইলোব্যাকটরের মতো ব্যাকটিরিয়া। আবার ফোনের টাচস্ক্রিনে গ্যাসট্রো এবং স্ট্যাপের মতো ক্ষতিকর ভাইরাস জন্মাতে পারে বলে মত বিশেষজ্ঞদের।

টয়লেটে ব্যবহারের পর সেই ফোন আমরা বিছানায় বা ডায়নিংয়ে রাখি এবং সেখানেও ব্যবহার করি। চিকিৎসকরা জানাচ্ছেন, মোবাইলে বাসা বাঁধা এই ক্ষতিকর ভাইরাস ও ব্যাকটিরিয়া খাবারের সঙ্গে লালায় মিশে দ্রুত ছড়িয়ে শরীরে পড়ে।

আরও ভয়ানক বিষয় হচ্ছে, মোবাইল ফোনটি ব্যবহার করার সময় যখন গরম হয়ে যায় তখন ব্যাকটেরিয়াগুলোও তাদের বংশবিস্তার করার উপযোগী পরিবেশ পায়।এতে শরীরে নানা রোগ বাসা বাধতে পারে। তাই টয়লেটে মোবাইল ব্যবহার না করারই পরামর্শ দেন বিশেষজ্ঞরা।

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ