বার্সেলোনায় যথাযোগ্য মর্যাদায় আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস পালিত

স্পেনের বার্সেলোনায় যথাযোগ্য মর্যাদায় আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস পালন করা হয়েছে।  ২১ ফেব্রুয়ারি (রবিবার) স্থানীয় প্লাসা পেদ্রো চত্বরে স্বাস্থবিধি মেনে সীমিত পরিসরে বায়ান্নোর ভাষা শহীদদের স্মরণে নির্মিত স্পেনের একমাত্র স্থায়ী শহীদ স্মৃতি ফলকে পুষ্পস্তবক অর্পণ করেন স্থানীয় প্রবাসী বাংলাদেশিরা।

ভাষা শহীদ স্মরণে ফুলে ফুলে সজ্জিত স্মৃতিফলক।

ভাষা শহীদদের শ্রদ্ধা জানাতে শহীদ স্মৃতি ফলকে পুষ্পস্তবক অর্পণ করেন বার্সেলোনায় নিযুক্ত বাংলাদেশের কাউন্সিলর রামন পেদ্রো বারনাউস।  কাতালোনিয়ার বামপন্থী রাজনৈতিক দল ইআরসির পক্ষ থেকে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা জানান সংসদ সদস্য রবার্ট মাসি নাহার।
এরপর পুষ্পস্তবক অর্পণ করে ভাষা শহীদদের প্রতি শ্রদ্ধা জানান স্পেন-বাংলা প্রেসক্লাব, বাংলা স্কুল বার্সেলোনা, ঢাকা জেলা সমিতি কাতালোনিয়া, এসোসিয়েশন কুলতুরাল দে সুনামগঞ্জ এন কাতালোনিয়া , বাংলাদেশ মহিলা সমিতি এন কাতালোনিয়া, বন্ধুসুলভ মহিলা সংগঠন, গোলাপগঞ্জ এসোসিয়েশন বার্সেলোনা, ইয়ুথ বাংলা কালচারাল ফোরাম স্পেন, স্পেনের মূলধারার রাজনৈতিক দল ইআরসি, কাতালোনিয়া আওয়ামী লীগ, কাতালোনিয়া বিএনপি, কাতালোনিয়া যুবলীগ, কাতালোনিয়া যুবদল, শান্তাকলমা বিএনপি, বাংলাদেশ আওয়ামী মুজিব সৈনিক লীগসহ বিভিন্ন সামাজিক, সাংস্কৃতিক ও রাজনৈতিক দলের নেতৃবৃন্দ।

প্রসঙ্গত উল্লেখ্য, ২০১৯ সালের ২১ ফেব্রুয়ারি বার্সেলোনা সিটি কর্পোরেশনের উদ্যোগে স্থানীয় প্লাসা পেদ্রো চত্বরে বায়ান্নর ভাষা আন্দোলনে নিহত শহীদগণকে স্মরণ করে এবং শ্রদ্ধা জানিয়ে একটি স্থায়ী শহীদ স্মৃতি ফলক নির্মাণ করা হয়।

প্রবাসীদের এই দাবির প্রতি সম্মান জানিয়ে সিটি করপোরেশনের দেয়া এই স্মৃতি ফলকের কারণে বায়ান্নর একুশে ফেব্রুয়ারির ভাষা শহীদদের শ্রদ্ধা জানানোর জন্য স্থানীয় প্রবাসী বাংলাদেশিরা স্থায়ী স্মৃতি ফলকসহ পাশাপাশি একুশে ফেব্রুয়ারি উদযাপনের একটি নির্দিষ্ট জায়গা পায়।

শ্রদ্ধা নিবেদন করছেন স্পেন-বাংলা প্রেসক্লাবের সদস্যবৃন্দ।

এই স্মৃতি ফলকে ‘প্রোগ্রামা দে মেমোরিয়াস, ২০১৯’ শিরোনামে সম্মুখ অংশে বাংলায় লেখা আছে, ‘আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস ২১ ফেব্রুয়ারি, যা বাংলা ভাষার আন্তর্জাতিক স্বীকৃতির আন্দোলনের জন্য পরিচিত।  নিচের অংশে শহীদ মিনারের প্রতিকৃতির ছবি এবং কেন্দ্রীয় শহীদ মিনার ‘বাংলাদেশ ১৯৫২’ এবং বার্সেলোনা সিটি করপোরেশনের লোগো দেয়া আছে। আর স্মৃতি ফলকের পেছনের অংশে একই লেখা কাতালান ভাষায় লিপিবদ্ধ আছে।

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ