গলা ব্যথা নিরাময়ের ঘরোয়া উপায়

অনলাইন ডেস্কঃ মৌসুম পরিবর্তনে ঠাণ্ডা আবহাওয়ায় অনেকের ঠাণ্ডার সমস্যাসহ গলা ব্যথার প্রবণতা দেখা দেয়। এটি আমাদের শরীরে অস্বস্তি তৈরি করে। ফলে যেকোনো খাবার বা পানীয় খেতেও সমস্যা হয়, ঢোক গিলতে কষ্ট হয়।

শুধুমাত্র মৌসুম পরিবর্তনই নয়, অফিসে দীর্ঘক্ষণ এসির মধ্যে থাকলেও ঠাণ্ডা লেগে গলা ব্যথা হয়, টনসিলের সমস্যাও বাড়ে। এই সমস্যা এক-দুই দিনে কাটে না। এর থেকে মুক্তি পেতে গেলে ওষুধের চেয়েও বেশি প্রয়োজন বাড়িতেই নিজের যত্ন নেওয়া।

ঘরোয়া কিছু উপায় অবলম্বন করলেই সহজে এই সমস্যা থেকে মুক্তি মেলে। চলুন দেখে নেওয়া যাক ঘরোয়া সেই উপায়গুলো-

লবণ পানির গড়গড়া

গলা ব্যথা হলে এর প্রাথমিক চিকিৎসা হলো গরম পানি লবণ দিয়ে গড়গড়া করা। এক গ্লাস হালকা গরম পানি নিন। এতে এক চা চামচ লবণ যোগ করে সেটি ভালোভাবে মিশ্রিত করুন। এটি গলা ব্যথা থেকে তাৎক্ষণিক মুক্তি দিতে সহায়তা করে।

আদা

অ্যান্টি-ইনফ্ল্যামেটরি এবং অ্যান্টি-ব্যাকটেরিয়াল বৈশিষ্ট্যের জন্য গলা ব্যথা ভালো করতে সহায়তা করে আদা। পানি গরম করে তাতে কয়েক টুকরো ফ্রেশ আদা দিন। এরপর এটি প্রায় ৫-১০ মিনিটের জন্য ফোটান। দিনে কমপক্ষে দুবার এই পানি পান করুন। এতে এক চা চামচ মধুও যোগ করতে পারেন।

লেবুর রস

বিশেষজ্ঞদের মতে, লেবু আমাদের শরীরের টক্সিন দূর করার ক্ষেত্রে খুব উপকারি। তাই গলা ব্যথায় এক গ্লাস গরম পানি লেবুর রস ও এক চা চামচ মধু ভালোভাবে মেশান। দিনে অন্তত দুবার এটি পান করুন। গলা ব্যথা ও টনসিলের সমস্যা দূর করতে এটি সাহায্য করে।

হলুদ

হলুদ গলা ব্যথা নিরাময়ের অন্যতম সেরা উপাদান। খানিকটা হলুদ গুঁড়ো এক গ্লাস গরম পানির সঙ্গে মিশিয়ে নিন। তারপরে সকালে খালি পেটে পান করুন। দুধের সঙ্গেও হলুদ মিশিয়ে খেতে পারেন।

দারুচিনি

কয়েক ফোঁটা দারুচিনি তেলের সঙ্গে এক চা চামচ মধু মিশ্রিত করুন। দিনে একবার এটি ব্যবহার করুন, গলার ব্যথা থেকে দ্রুত মুক্তি দিতে সহায়তা করে।

মধু

মধু তার অ্যান্টিব্যাকটেরিয়াল এবং অ্যান্টি-ইনফ্ল্যামেটরি বৈশিষ্ট্যগুলোর জন্য পরিচিত। এটি প্রাচীনকাল থেকেই গলা ব্যথা নিরাময়ের জন্য ব্যবহৃত হয়। এক কাপ গরম পানিতে এক থেকে দুই চামচ মধু মেশান এবং দিনে দুই থেকে তিনবার পান করুন অথবা ঘুমাতে যাওয়ার আগে আপনি এক চা চামচ মধু খেতে পারেন।

ভাপ নিন

প্রথমে কান-মাথা ভালো করে জড়িয়ে নিন কাপড় দিয়ে। এরপর সামান্য লবণ দিয়ে গরম পানির ভাপ নিন। দিনে দুবার এটা করতে পারলে খুব সহজেই গলার ব্যথা কমবে।

রসুন

রসুন অ্যান্টিব্যাকটেরিয়াল এবং অ্যান্টিসেপটিক বৈশিষ্ট্যের জন্য পরিচিত এবং গলা ব্যথা নিরাময়ে সহায়তা করে। রসুনের মধ্যে থাকা অ্যালিসিন গলা ব্যথার কারণ ব্যাকটেরিয়াকে মেরে ফেলতে সহায়তা করে। এটি কাঁচাও খাওয়া যায় এবং রান্না করেও খাওয়া যায়।

লবঙ্গ

মাঝে মাঝেই মুখে দুটি লবঙ্গ রাখুন এবং সেগুলো নরম হওয়ার পর চিবিয়ে গিলে ফেলুন। এটি কার্যকরভাবে গলা ব্যথা নিরাময়ে সহায়তা করে।

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ